সর্বশেষ সংবাদ

চরফ্যাশনে মহিলা ও শিশু শ্রমিকের সংখ্যা আশংকাজনক হারে বাড়ছে

মিজানুর রহমান সোহেল,চরফ্যাশন(ভোলা)॥
ভোলা জেলার গুরুত্বপূর্ণ বানিজ্যিক কেন্দ্র চরফ্যাশনের সর্বত্র মহিলা ও শিশু শ্রমিকের সংখ্যা দিন দিন আশংকাজনক হারে বেড়েই চলছে। এসব দুস্থ, অসহায় মহিলাindex ও শিশুরা অভাবের তাড়নায় কঠিন ও ঝুকিপূর্ণ কাজ করতে বাধ্য হচ্ছে। জীবন ও পরিবার-পরিজন বাঁচানোর তাগিদে অভাবগ্রস্থ মহিলা ও শিশুদের ছাদঢালাই ইটভাঙ্গা, রাস্তা মেরামত কাজ, মাটি কাটা, ইটের ভাটায় ইট তৈরী, ওয়েল্ডিং কারখানা ও ব্রেড ফ্যাক্টরীতে প্রতিদিন কঠোর পরিশ্রম পরিশ্রম করতে হচ্ছে।
চরফ্যাশন উপজেলা সদরসহ সর্বত্র ছোট-বড় কল-কারখানা গড়ে উঠেছে। ফলে এসব প্রতিষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক মহিলা ও শিশু শ্রমিক বিভিন্ন কাজে নিয়োজিত রয়েছে। বিশেষ করে বিধবা, স্বামী পরিত্যক্ত নারী ও শিশুরাই অভাবের তাড়নায় বিভিন্ন কঠিন,বিপজনক ও ঝুকিপূর্ণ কাজে প্রতিদিন নিজেদের নিয়োজিত রেখেছে। এছাড়া অসহায় বহু মহিলা ও ক্ষুদ্র থেকে বড় ধরনের কল-কারখানায় পেটেভাতে কাজ করছে। কাকডাকা ভোর সেষে শুরু করে রাত ৯ টা পর্যন্ত এরা কঠোর পরিশ্রম করে দিনাতিপাত করতে হয়। অনেকে আবাসিক এলাকায় বাসা-বাড়ীতে ও কাজ করছে দিন রাত।
অনেক শিশু রিক্সা, টেম্পু, মাইক্রোবাস, টমটম ও মিনিবাসের হেলপার হিসাবেও কাজে নিয়োজিত রয়েছে। আইনগত ভাবে শিশু শ্রম নিষিদ্ধ থাকলে ও এসব শিশু জীবন বাঁচানোর তাগিদে ঝুকিপূর্ণ কাজ করতে বাধ্য হচ্ছে। আর যা পারিশ্রমিক পাচ্ছে সেটি ও তাদের হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের তুলনায় নিতান্তই নগন্য। যে বয়সে শিশুদের বই খাতা হাতে নিয়ে স্কুলে যাওয়ার কথা, সে বয়সে তারা করছে হোটেলে বয়গিরি ও যানবাহনে হেলপারি। কিন্তু এ ব্যাপারে সরকার ও সংশি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন ভাবনা নেই।

 

Leave a Reply