সর্বশেষ সংবাদ

বরিশালে কিন্ডার গার্ডেনে হামলা আহত-১০

ডেস্কঃ জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বুধবার সকালে জেলার গৌরনদী উপজেলার টরকীরচর গ্রীণ কিন্ডার গার্ডেনে প্রতিপক্ষের ভাড়াটিয়া লোকজনে কমান্ডো ষ্টাইলে হামলা চালিয়ে স্কুলের দশটি কক্ষের আসবাবপত্র ভাংচুর করে মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে।

হামলায় তিন শিক্ষক, পাঁচ শিক্ষার্থীসহ কমপক্ষে দশজন আহত হয়েছে। হামলার কারণে বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার অনুষ্ঠান বাদ হয়ে যায়।

এলাকাবাসী, আহত ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার টরকীরচর মৌজার ১১নং খতিয়ানের ১০৬নং দাগের ৫০ শতক জমি নিয়ে একই মৌজার আবুল হোসেন ওরফে আবুল হাজ্বীর সাথে স্থানীয় মোশারফ হোসেন সরদারের দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে।

এনিয়ে বরিশাল আদালতে একাধিক মামলা বিচারাধীন। কিন্ডার গার্ডেনের পরিচালক সুলতানা রাজিয়া অভিযোগ করেন, বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার সময় প্রতিপক্ষ আবুল হোসেন, তার ছেলে মাসুদ রানা ও জাফর ইকবালের নেতৃত্বে দু’শতাধিক নেতাকর্মীরা কমান্ডো ষ্টাইলে হামলা চালায়। হামলাকারীরা স্কুলে প্রবেশ করে শ্রেণীকক্ষ ভাংচুর করে লুটপাট করে নিয়ে যায়।

মোশারফ হোসেন সরদার অভিযোগ করেন, হামলাকারীদের বাঁধা দিতে গিয়ে গার্ডেনের শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ কমপক্ষে ১০জন আহত হয়েছে। হামলাকারীরা গার্টেনের পাঁচটি কক্ষে তালাবদ্ধ করে ও অপর পাঁচটিতে তাদের মামলামাল ভর্তি করে দখল করে নেয়।

ঘন্টাব্যাপী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের সময় থানা পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করা হলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। পরবর্তীতে তিনি থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া সত্বেও অভিযোগ গ্রহণ না করে উল্টো ওসি সাজ্জাদ হোসেন তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।

হামলা, ভাংচুরের অভিযোগ অস্বীকার করে আবুল হোসেন ওরফে আবুল হাজী বলেন, বিগত ২০০৭ সালে জনৈক নারগিস বেগম ৫ বছরের জন্য স্কুল করার জন্য জমিটি লিজ নিয়েছেন। পরবর্তীতে দু’দফা তার সাথে চুক্তি নবায়ন করা হয়। চুক্তির মেয়াদ শেষে নারগিস অনেক আগেই চলে গেছেন।

গালিগালাজের অভিযোগ অস্বীকার করে গৌরনদী থানার ওসি মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, মোশারফকে মালিকানার কাগজপত্র নিয়ে থানায় আসতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply