সর্বশেষ সংবাদ
আমতলী ঢাকা রুটে লঞ্চচলাচল বন্ধ

আমতলী ঢাকা রুটে লঞ্চচলাচল বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃবরগুনার আমতলী থেকে ঢাকা রুটের যাত্রীবাহি তিনটি লঞ্চ চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন বরগুনা, আমতলী, তালতলী, কলাপাড়া, গলাচিপাসহ দক্ষিনাঞ্চলের কয়েক হাজার যাত্রী। লঞ্চ চলাচল বন্ধের প্রতিবাদে মঙ্গলবার দুপুরে আমতলীতে স্থানীয়রা বিক্ষোভ মিছিল করেছে ।

আমতলী লঞ্চঘাট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে দীর্ঘদিন ধরে আমতলী-ঢাকা রুটে সৈকত নেভিগেশন কোম্পানীর জরাজীর্ন লঞ্চে যাত্রী পরিবহন করা হতো। ২০১৪ সালের আগষ্ঠ মাসে আমতলী সবুজবাগ ফেরিঘাট (নতুন লঞ্চঘাট) টু ঢাকা রুটে এমভি ইয়াদ, এমভি হাসান-হোসেন ও এমভি সুন্দরবন নামের অত্যাধুনিক তিনটি লঞ্চ যাত্রী পরিবহন শুরু করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। এই লঞ্চ কোম্পানীর প্রতিনিধি হাফিজুর রহমান জানান সৈকত নেভিগেশন কোম্পানীর মালিক সম্প্রতি ঐ তিনটি লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে উচ্চ আদালতে আবেদন করলে ২৪ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার মহামান্য উচ্চ আদালত লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারী করেন।

এ দিকে নিরাপদ যাত্রার অত্যাধুনিক লঞ্চ চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এই রুটের কয়েক হাজার যাত্রী বিপাকে পড়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে যাত্রী, স্থানীয় জনসাধারন, ঘাট শ্রমিকরা এ ঘটনার প্রতিবাদে আমতলী শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

আমতলীর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিএম দেলোয়ার হোসেন বলেন, নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান জনস্বার্থে আমতলী সবুজবাগ ফেরিঘাট টু ঢাকা রুটের লঞ্চ চলাচলের উদ্ধোধন করে ছিলেন। একটি কোম্পানীর মনোপলি ব্যবসার স্বার্থে লঞ্চ চলাচল বন্ধ হওয়ায় যাত্রী সাধারন আবারো জিম্মি হয়ে পড়বে।

আমতলী পৌরসভার মেয়র মো. মতিয়ার রহমান জানান, নিরাপদ যাত্রার প্রয়োজনে এই রুটে অত্যাধুনিক লঞ্চগুলো চলাচল করা প্রয়োজন ।

আমতলী সবুজবাগ ফেরিঘাট লঞ্চঘাটের সুপারভাইজার মো. শহিদুল ইসলাম জানান,এই লঞ্চ ৩টি চালু রাখার জন্য কর্তৃপক্ষ উচ্চ আদালতে রিট করার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন ।

Leave a Reply