সর্বশেষ সংবাদ

কায়রো স্টেডিয়ামে সংঘর্ষে নিহত ৪০

ডেস্ক: মিসরের কায়রো স্টেডিয়ামে সংঘর্ষে অন্তত ৪০ জন পদদলিত হয়ে মারা হয়েছেন। এ ঘটনার পর কর্তৃপক্ষ ফুটবল লিগ ম্যাচ অর্নিদিষ্টকালের জন্য স্থগিত করেছে।

স্থানীয় জামালেক দলের সমর্থকরা টিকেট ছাড়াই স্টেডিয়ামে জোর করে প্রবেশ করতে গেলে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে। এ সময় সংঘর্ষে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। ওইদিন স্থানীয় এনপিপিআই দলের সঙ্গে জামালেকের খেলা ছিল।

তবে স্টেডিয়ামে ঢোকার জন্য শুধু একটি গেইট খোলা থাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে সমর্থকরা অভিযোগ করেছে।

জামালেক সমর্থক গোষ্ঠী ‘হোয়াইট নাইটস’ নেতাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

হোয়াইটস নাইট তাদের ফেসবুক পেজে জানায়, স্টেডিয়ামের ফটক খুব সরু ছিল। তাই হুড়োহুড়ি করে প্রবেশ করতে গিয়ে সংঘর্ষ বাঁধে। পুলিশ আমাদের সরাতে টিয়ারগ্যাস ও গুলি করে।

২০১১ সালে একনায়ক হোসনি মোবারকের পতনের জন্য হোয়াইট নাইটসের সমর্থকরা ব্যাপক ভূমিকা রেখেছিল। তাই এ বিষয়ে রাজনৈতিক কোনো উদ্দেশ্যে ছিল কি না, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। মিশরের ফুটবল কর্তৃপক্ষ ওই লীগ স্থগিত করেছে।

এ ঘটনায় অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে।

তবে সংঘর্ষের পরও খেলা চলছিল। খেলা শেষে ফুটবল লিগ ম্যাচ স্থগিত করা হয়।

এর আগে ২০১২ সালে মিশরের বন্দরনগরী পোর্ট সৈয়দে সংঘর্ষে ৭৪ ফুটবল ভক্ত নিহত হওয়ার পর ফুটবল লিগ ম্যাচ স্থগিত করা হয়েছিল। বিবিসি।

Leave a Reply