সর্বশেষ সংবাদ
প্রথম আলোর বাউফল প্রতিনিধি কারাগারে প্রেরন

প্রথম আলোর বাউফল প্রতিনিধি কারাগারে প্রেরন

পটুয়াখালীর বাউফলে এক এএসআইর সঙ্গে হাতাহাতির ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় প্রথম আলোর উপজেলা প্রতিনিধি মিজানুর রহমানের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

সাংবাদিক মিজানের আইনজীবী এ্যাডভোকেট মজিবর রহমান টোটন জানান, বুধবার সকালে মিজানকে বাউফল থানা থেকে বাউফল উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করার পর ম্যাজিস্ট্রেট তারেক শামস তাকে জেলা কারাগারে পাঠান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে বাউফলের কালাইয়া বন্দর অতিক্রমকালে মোটরসাইকেলের সাইড না দেওয়াকে কেন্দ্র করে কালাইয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আ. হালিম খানের সঙ্গে প্রথম আলোর প্রতিনিধি মিজানের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তা হাতাহাতিতে রূপ নেয়। এ সময় মিজানের আঙ্গুল ভেঙে যায় এবং দারোগা হালিমের মাথায় রক্তাক্ত জখম হয়। পরে খবর পেয়ে মিজানকে এক তরফা অভিযোগে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নরেশ কর্মকার জানান, নৌ-পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে হালিমের দায়ের করা মামলায় মিজানকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

মিজানের স্ত্রী শারমিন সুলতানা জানান, ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় নিউজ করায় তার স্বামীকে একাধিক মিথ্যা মামলায় জড়ানো হয়েছে। ওসির রোষানলে পড়ে তার স্বামী সাজানো ঘটনার স্বীকার হয়েছেন।

এদিকে সাংবাদিক মিজান গ্রেফতার ও জামিন মঞ্জুর না হওয়ায় পটুয়াখালী জেলা সাংবাদিকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

Leave a Reply