সর্বশেষ সংবাদ
পবিপ্রবিতে প্রশাসন ও শিক্ষার্থীদের আলাদা বর্ষবরণ উৎসব

পবিপ্রবিতে প্রশাসন ও শিক্ষার্থীদের আলাদা বর্ষবরণ উৎসব

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে(পবিপ্রবি) নানা আয়োজনে উদযাপিত হচ্ছে বাংলা বর্ষবরণ-১৪২২। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা পৃথক পৃথকভাবে বর্ষবরণ উৎসব পালন করছে।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষক পদে অবৈধ নিয়োগ ও ছাত্র-ছাত্রীদের বিভিন্ন যৌক্তিক দাবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন মেনে না নেওয়ায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। পবিপ্রবি’র ইতিহাসে এই প্রথমবার সাধারণ শিক্ষার্থীরা ও প্রশাসন কোন উৎসব পাল্টাপাল্টি আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালন করছে বলে জানা গেছে। এ নিয়ে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকাল ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের সামনে থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আয়োজনে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শামসুদ্দীনের নেতৃত্বে একটি শোভাযাত্রা বের  হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে এসে শেষ হয়।

শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা অংশগ্রহন করে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে আয়োজিত অন্যান্য অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল চিত্র প্রদর্শণী, হাড়ি ভাঙ্গা প্রতিযোগিতা, বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

অপরদিকে সম্মিলিত ছাত্র ঐক্য পরিষদের ব্যানারে সাধারণ শিক্ষার্থীরা সকাল সাড়ে ৮টায় একটি শোভাযাত্রা বের করে। শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মী ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহন করে। এছাড়াও সম্মিলিত ছাত্র ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকে বর্ষবরণ উপলক্ষে বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

পাল্টাপাল্টি অনুষ্ঠান আয়োজনের ব্যাপারে সম্মিলিত ছাত্র ঐক্য পরিষদের আহবায়ক শাওন কুমার বাইন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি গুলো মেনে না নেওয়ায় সাধারণ শিক্ষার্থীরা আলাদা অনুষ্ঠান করতে বাধ্য হয়েছে’।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শামসুদ্দীন বলেন, ‘তারা আলাদা ভাবে অনুষ্ঠান করতেই পারে। সকালে ঢাকা থেকে এসে শোভাযাত্রায় যোগ দিয়েছি। এ ব্যাপারে আমি ঐ ভাবে খবর নেইনি’।

Leave a Reply