সর্বশেষ সংবাদ
সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর ,বরিশালে রেলপথ চালু হতে যাচ্ছে

সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর ,বরিশালে রেলপথ চালু হতে যাচ্ছে

ফরিদপুরের ভাঙ্গা থেকে বরিশাল পর্যন্ত এবং বরিশাল থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেললাইন নির্মিত হচ্ছে। শিগগিরই শুরু হচ্ছে এই রেলপথ নির্মাণের কাজ। এর মাধ্যমে পূরণ হতে যাচ্ছে বরিশালবাসীর দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা।
কয়েক বছর ধরে এ জেলার লোকজনের দাবি, বরিশালকে রেলওয়ে নেটওয়ার্কের আওতাভুক্ত করা। বিভিন্ন সরকারের সময়ে বরিশালের সঙ্গে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিলেও তার বাস্তবায়ন দেখা যায়নি।
রোববার বিকেলে রেলভবনে বাংলাদেশ রেলওয়ের জন্য ডিজাইনসহ প্রস্তাবিত এ রুটে রেললাইন নির্মাণের উদ্দেশে সম্ভাব্যতা যাচাই করার জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে ও চায়না সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন করপোরেশনের মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।
রেলওয়ে সূত্র জানায়, ভাঙ্গা থেকে বরিশাল পর্যন্ত এ লাইনটি প্রায় ১০০ কিলোমিটার। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত রেলওয়ের অগ্রাধিকার প্রকল্পগুলোর মধ্যে এটি একটি। রেলওয়ের মহাপরিকল্পনাতেও এ প্রকল্প অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। সরকার থেকে সরকার (জিটুজি) ভিত্তিক অর্থায়নের ভিত্তিতে চায়নার সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানটি এ কাজ সম্পন্ন করবে। এ সমঝোতা স্মারক ১২ মাস পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।
ফরিদুপরের ভাঙ্গা-বরিশাল পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ করা হলে পায়রা সমুদ্রবন্দর ও কুয়াকাটা রেল যোগাযোগের আওতায় আসবে। বর্তমানে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম নৌ ও সড়কপথ।
অবহেলিত বরিশালবাসীর ট্রেনে যাতায়াতের সুবিধা নেই। অথচ একসময় এখানে রেলওয়ে জংশন ছিল। জমিও অধিগ্রহণ করা হয়। কিন্তু রেলওয়ে বাস্তবায়নের ফাইলটি দীর্ঘ চার দশক ধরে ঘুরপাক খেয়েছে দপ্তরে দপ্তরে। এ অবস্থায় বরিশালের নাগরিক সমাজ রেল যোগাযোগব্যবস্থার দাবিতে লংমার্চ, রোডমার্চ, অবরোধ, মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।
সূত্র ইত্তেফাক

 

Leave a Reply