সর্বশেষ সংবাদ
অবশেষে চালু হচ্ছে বিনামূল্যের ইন্টারনেট সেবা

অবশেষে চালু হচ্ছে বিনামূল্যের ইন্টারনেট সেবা

 

বিনামূল্যের ইন্টারনেট সার্ভিসের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে বাংলাদেশ। আগামীকাল রবিবার থেকে দেশের গ্রাহকরা এই সুবিধা ভোগ করতে পারেবন।  সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, রবি আজিয়াটা এবং ফেসবুকের উদ্যোগে এই সেবা চালু হচ্ছে।  ইন্টারনেট ডট ওআরজির (internet.org) প্রকল্পের মাধ্যমে এ সুবিধা পাওয়া যাবে।
                            প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা জানান, রোববার থেকে বাংলাদেশে বিনামূল্যের ইন্টারনেট সুবিধা চালুর পরিকল্পনা করা হয়েছে।
                      বিশ্বের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের দোরগোড়ায় ইন্টারনেট সেবা দিতে ইন্টারনেট ডটওআরজি প্রতিষ্ঠা করেন ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ। এটি একটি বৈশ্বিক অংশিদারিত্বমূলক উদ্যোগ। ইন্টারনেট ডট ওআরজির মাধ্যমে ডাটা খরচ ছাড়াই নির্দিষ্ট কিছু কনটেন্ট ব্যবহার করা যায়। এর মাধ্যমে জিরো ফেসবুক এবং জিরো উইকিপিডিয়ার সঙ্গে কনটেন্ট সেবাদাতাকে যুক্ত করে ইন্টারনেট সেবা দেয়া হয়।
এই প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রথমসারির কিছু সংবাদপত্র, জাতীয় তথ্য বাতায়ন, সার্ভিস পোর্টাল, ন্যাশনাল ফর্ম পোর্টালসহ কিছু সরকারি ওয়েবসাইট বিনামূল্যে পাওয়া যাবে।
পর্যায়ক্রমে সরকারের সব সেবা সাইট ও গুরুত্বপূর্ণ নাগরিক সেবার কনটেন্ট এতে যুক্ত করা হবে। ওআরজি অ্যাপ ও কম্পিউটারে কোন ডাটা খরচ ছাড়াই বিনামূল্যে এসব ওয়েবসাইট ও কনটেন্টের বিস্তারিত পাওয়া যাবে।
বাংলাদেশে ফেসবুকের এই প্রকল্পটিতে ইতোমধ্যে যুক্ত হয়েছে মোবাইল অপারেটর রবি।
চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড মেলায় সর্বপ্রথম বাংলাদেশে এ বিনামূল্যের ইন্টারনেট চালুর আলোচনা গুরুত্ব পায়। তখন বিশ্বের আরও কয়েকটি দেশের মতো বাংলাদেশেও ইন্টারনেট ডট ওআরজি প্রকল্প চালুর প্রতিশ্রুতি দেন ফেসবুকের কর্মকর্তা আঁখি দাস।
এরপর এটুআই, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, ফেসবুকসহ সংশ্লিষ্ট পক্ষের উদ্যোগে বিষয়টি এগিয়ে নিয়ে গত ২১ এপ্রিল প্রকল্পটি চালুর সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত হতে মোবাইল আপারেটরদের রেগুলেশন সংক্রান্ত জটিলতা ও কনটেন্ট প্রোভাইডারের অভাবে সে উদ্যোগ কিছুটা বিলম্বিত হয়েছে। অবশেষে ১০ মে থেকে প্রকল্পটি চালুর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
ইতিমধ্যে এ প্রকল্প তানজানিয়া, কেনিয়া, কলাম্বিয়া, ঘানা, জাম্বিয়া ও ভারতে শুরু হয়েছে।
ফ্রি ইন্টারনেট সেবার প্রতিষ্ঠাতা সদস্যের মধ্যে রয়েছে স্যামসাং, এরিকসন, মিডিয়াটেক, ওপেরা সফটওয়্যার, কোয়ালকম, নকিয়া এবং ফেসবুক। প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছাড়াও অন্যান্য মোবাইল প্রযুক্তি কোম্পানির সঙ্গে এই ইন্টারনেট সেবা নিয়ে সামগ্রিক সহযোগিতার উদ্যোগ নেয় ইন্টারনেট ডটওআরজি। বিশ্বের ৪০০ কোটি মানুষকে ইন্টারনেট সুবিধার আওতায় আনতে কাজ করছে তারা।

Leave a Reply