সর্বশেষ সংবাদ
বন্ধ সি-ট্রাক চলাচল।।মনপুরায় টানা বর্ষন ও জোয়ারে নিম্নাঞ্ছল প্লাবিত, ২০ হাজার মানুষ পানিবন্ধি

বন্ধ সি-ট্রাক চলাচল।।মনপুরায় টানা বর্ষন ও জোয়ারে নিম্নাঞ্ছল প্লাবিত, ২০ হাজার মানুষ পানিবন্ধি

সীমান্ত হেলাল, মনপুরা(ভোলা) প্রতিনিধি ॥
ভোলার মনপুরায় গত ৪ দিনের টানা বর্ষন ও জোয়ারের নি¤œাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে পানি বন্দী হয়ে পড়েছে উপজেলার ৪ ইউনিয়নের অন্তত ১০ হাজার মানুষ। এদিকে দুর্যোগপূর্ন আবহাওয়ার কারনে জেলার সাথে যোগাযোগের একমাত্র নৌযান যাত্রীবাহি সী-ট্রাক বন্ধ রয়েছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে শতশত যাত্রী।

মনপুরার মূল ভূ-খন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন কলাতলীচর, ঢালচর, চরনিজাম, চর শামসুদ্দিন জোয়ারের পানিতে দিনে-রাতে দুবেলা পানি বন্দী অবস্থায় থাকতে হয় বলে মুঠোফোনে জানান চরের বাসিন্দারা। এতে কোন প্রকার বাজার সওদা করতে না পেরে রোযার মাসে না খেয়ে ধর্মীয় রীতি পালন করছেন তারা। কোন প্রকার খাদ্য-দ্রব্য ঘরে না থাকায় অনেকে ইফতার করছেন পানি খেয়ে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারি প্রকৌশলী আবুল কালাম মুঠোফোনে জানান, পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। মনপুরার চরফৈজুদ্দিন ও সাকুচিয়ার সংযোগস্থলে নতুন স্লুইজ গেট নির্মান করা হলে মূল-ভূখন্ডের মানুষ পানিবন্দী থেকে মুক্তি পাবে।

সরেজমিনে মনপুরার বিভিন্ন অঞ্চল ঘুরে দেখা যায়, হাজিরহাট ইউনিয়নেরর চরজ্ঞান, চর যতিন, দাসেরহাট, সোনারচর, জোয়ারে পানিতে ডুবে রয়েছে। মনপুরা ইউনিয়নের আন্দিরপাড়, পূর্ব আন্দিরপাড়, রামনেওয়াজ বাজার, লঞ্চঘাট ও ইউনিয়ন পরিষদ এলাকা পানিতে ডুবে রয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল হেকিম মুঠোফোনে জানান, মেঘনার পানি বিপদ সীমার ৭৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে চরাঞ্চল সহ অনেক এলাকা প্লাবিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

Leave a Reply