সর্বশেষ সংবাদ
হাসপাতালে ডাক্তারের রুমে তালা

হাসপাতালে ডাক্তারের রুমে তালা

কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥ কলাপাড়া হাসপাতালের এক ডাক্তারের রুমে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে। নিজ কর্মস্থল ছেড়ে হাসপাতালে বসে ওপেন সিক্রেট ভিজিট নেয়ায় এ তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করলেও ডা. নুর ই আলম সিদ্দিকী’র দাবি হাসপাতালের একটি চক্র এ কাজের সাথে জড়িত। সোমবার বিকালে এ তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়। মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালের ডাক্তার-কর্মচারীদের উপস্থিতিতে সেই তালা ভেঙ্গে ফেলা হয়। ডাক্তারের রুমে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার ঘটনায় গোটা এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। জানাযায়, কলাপাড়া হাসপাতালের ডা. নুর ই আলম সিদ্দিকীর পোষ্টিং উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের এফডব্লিউসি’তে। কিন্তু তিনি সেই কর্মস্থলে না গিয়ে গত ১০ মাস ধরে কলাপাড়া হাসপাতালে প্রাকটিস করছেন। হাসপাতালের জরুরী বিভাগ ও অপারেশন থিয়েটার থাকা সত্বেও নিজ রুমে বসে অপারেশন করছেন। তার ভিজিট ও অপারেশন বানিজ্যের কারনে টিয়াখালী ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এমনকি তার ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে। কিন্তু হাসপাতালে এক যুগেরও বেশি সময় ধরে কর্মরত এক জামায়াত সমর্থিত কর্মচারী ও এক ডাক্তারের কারনে তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থাই নিতে পারেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতালে গিয়ে জানাযায়, বর্তমানে হাসপাতালে দীর্ঘদিন ধরে ডাক্তারদের মধ্যে অভ্যন্তরীন কোন্দল চলছে। এ কোন্দলে হাসপাতালের কর্মচারীরাও জড়িয়ে পড়ছেন। জামায়াত ও আওয়ামীলীগ সমর্থিত ডাক্তারদের এ কোন্দলের কারনে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা সীমাহীন দূর্ভোগে পড়ছেন। অফিস চলাকালীন ভিজিট নেয়ার নিয়ম না থাকলেও অধিকাংশ ডাক্তারই অফিস চলাকালীন ২/৩’শ টাকা ভিজিট নিচ্ছেন। কোন ডাক্তার কতো বেশি রোগী দেখতে পারেন এই প্রতিযোগীতায় একশ্রেনীর দালাল ডাক্তারদের রোগী সরবরাহের প্রতিযোগীতায় নামায় প্রায়ই হাসপাতালের অভ্যন্তরে হাতাহাতি, রোগী নিয়ে টানাটানির ঘটনা ঘটছে। এই কারনেই ডা. নুর ই আলম সিদ্দিকীর রুমে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন। স্থানীয়দের অভিযোগ অফিস চলাকালে রোগীর চেয়ে এখন দালালদের সংখ্যা বেশি থাকে। এদের ৪/৫’শ টাকা দিয়ে ডাক্তার পুষে রাখছেন বলে জানান। এ ব্যাপারে ডা. নুর ই আলম সিদ্দিকী জানান, তার পোষ্টিং টিয়াখালী হলেও সেখানে রোগী না পাওয়ায় হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন। সাধারন রোগীরা তার কাছে ভালো সেবা পাওয়ায় কেউ ক্ষুদ্ধ হয়ে তার রুমে তালা মারতে পারে। কলাপাড়া হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য প্রশাসক ডা. লোকমান হাকিম জানান, ডাক্তারের রুমে তালা মারার ঘটনা নিন্দনীয়। তার উপস্থিতিতেই তালা ভেঙ্গে ওই ডাক্তারকে রুমে প্রবেশ করানো হয়। এ ঘটনায় আজ (মঙ্গলবার) একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।

Leave a Reply