সর্বশেষ সংবাদ
গনসংবর্ধনায় সিক্ত মুফতি ফয়জুল করিম

গনসংবর্ধনায় সিক্ত মুফতি ফয়জুল করিম

স্টাফ রিপোর্টার: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র নায়েবে আমীর আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মুফতি সৈয়দ মোঃ ফয়জুল করিম, পীরে কামেল চরমোনাই, মধ্য প্রাচ্য সফর শেষে সৌদির রাষ্টীয় মেহমান হিসেবে ওমরাহ পালন করে তার মাতৃভূমী বরিশাল আগমন করেন। তার বরিশাল আগমন উপলক্ষ্যে  ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ বরিশাল মহানগর কমিটির উদ্দ্যোগে বরিশাল নগরীর টাউন হল অডিটরিয়ামে লাল গোলাপের শুভেচ্ছার মাধ্যমে সংবর্ধনা জানানো হয়। উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মোঃ রেজাউল করিম চরমোনাই পীর। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রিয় শ্রমিক আন্দোলনের উপদেষ্টা ডা. সিরাজুল ইসলাম সিরাজি।  সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সৌদিআরব থেকে সদ্য মুক্তি প্রাপ্ত ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র নায়েবে আমীর আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মুফতি সৈয়দ মোঃ ফয়জুল করিম তার বক্তব্যে বলেন, উঝঈথ০০৯৩২৬ মে তিনি ওম্যানের উদ্দেস্যে বাংলাদেশ ত্যাগ করেন পরে ওম্যান সফর করে ২৮ মে ওমরা পালন করার উদ্দেস্যে সৌদিআরব জান। সৌদিতে গিয়ে তিনি দেশটির রাজধানী রিয়াদে একটি ওয়াজ মাহফিলে যোগদেন। ওয়াজ মাহফিলে তিনি বয়ান শুরু করার সাথে সাথে সৌদির এক লোক জানায় হুজুর সিআইডির এক বড় অফিসার আসছে আপনার সাথে কথা বলবে। পরে তিনি কথা বলতে যায় এবং সিআইডি তাকে সন্মানের সাথে থানায় নিয়ে যায়। পরে থানায় নিয়ে তার বিরুদ্ধে ১১ অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের মধ্যে উল্ল্যেখ যোগ্য হল তিনি তালেবানের সদস্য কিনা, তিনি আলকায়দার সদস্য কিনা, তিনি আইএসএর সদস্য কিনা, তিনি সিয়া সদস্য কিনা, তিনি সুফি(ঢোল তবলা বাজানোর লোক) কিনা। মাওলানা মুফতি সৈয়দ মোঃ ফয়জুল করিমের বেশ কিছু বয়ানের ক্যাছেট শোনেন এবং তরজমা করেন। তারা চরমোনাইর কেতাব ও অবস্থান সম্পর্কে তদন্ত করেন। প্রায় ১ মাস ১৩দিনের তদন্তে তিনি নির্দোষ প্রমানিত হন।  জাদের কারনে আটক হন তারা বাংলাদেশেরই কিছু নাম ধারী  আলেমরা এই কাজ করিযেছে সৌদি পুলিশ দিয়ে। পরে ৮ জুলায় তাকে মুক্তি দিয়ে রাষ্টিয় মেহমান হিসেবে ওমরাহ পালন শেষে ফাষ্ট ক্লাস বিমানের টিকেট কেটে দেয় সৌদির ধর্ম মন্ত্রী। তিনি আরও বলেন সৌদি বাদশা ও ধর্ম মন্ত্রী তাকে আটকের বিষয় নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং ক্ষমা চান। তিনি এবং তার বড় ভাই এক জোড়ের ভাই তিনি আটকের পর তার ভাইয়ের অবস্থা কি হয়েছে তা নিয়েও চিন্তা করেন। তিনি একটি কেতাব লিখার কথা বলেন কিতাবের নাম হল দুনিয়ার জেল ও আখিরাতের জেল। উঝঈথ০১২৮অনুষ্ঠানে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মোঃ রেজাউল করিম চরমোনাই পীর বলেন আমার ভাইয়ের বিপদের মধ্য দিয়ে সারা বিশ্বের মানুষ চরমোনাই তরিকা সম্পর্কে ধারনা লাভ করে। তিনি বলেন চরমোনাইকে বিতর্ক করার চেষ্টা চলছে। মুফতী ফয়জুল করিমের আগমন উপলক্ষ্যে বরিশাল মহানগরের প্রতিটি অলি গলিতে আনন্দের ঢল নেমেছে। তার আগমন উপলক্ষ্যে বরিশাল মহানগর কমিটির নেতৃত্বে বরিশাল দোয়ারিকা শিকারপুর টোল থেকে প্রায় ৫০০ টি মোটর সাইকেল, প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস যোগে তাকে টাউন হল অডিটরিয়ামে নিয়ে উপস্থিত হন। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশে বরিশাল মহানগর নেতৃবৃন্দ  মুফতি সৈয়দ মোঃ ফয়জুল করিমকে সংবর্ধনা জানায়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, মহানগরের সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ্ব মাওঃ লুৎফুর রহমান, জয়েন্ট সেক্রেটারী মাওঃ আবুল খায়ের, সাগঠনিক সম্পাদক মাওঃ শাহাদাত হোসেন নূরী, প্রচার সম্পাদক আলহাজ্ব এনামুল হক শামীম সহ মহানগর সকল নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply