সর্বশেষ সংবাদ
ছোটেদের পোশাকেও ভারতীয় সিরিয়ালের নাম

ছোটেদের পোশাকেও ভারতীয় সিরিয়ালের নাম

নিজস্ব প্রতিবেদকঃমানুষের জীবনে আনন্দ মুহুর্ত শেষ নেই। আর ঈদ তার মধ্যে অন্যতম। ঈদের দিনে ধনী গরীব, ছোট বড় সবাই আনন্দে মেতে থাকে। এই দিনটিকে ঘিরে সবাই বিশেষ প্রস্তুতি রাখে। তবে এই দিনটিকে ঘিরে শিশুদের জল্পনা কল্পনা বেশি থাকে। আর শিশুরাই দিনটিতে আনন্দ বেশি করে থাকে। ঈদ বাজারে বড়দের পাশাপাশি জমে উঠেছে ছোটদের পোশাক বাজার। শুধু মাত্র বড়দের পোশাকে আধুনিক ডিজাইন কিংবা নামকরন করা হয়নি ছোটেদের পোশাকে রয়েছে আধুনিকতার ছোঁয়া রয়েছে নামকরনে। তবে বড়দের মত ছোটদের পোশাকে ভারতীয় সিরিয়াল অনুযায়ী নাম করন করা হয়েছে। পোশাকের নামকরনে গুরুত্ব্ পেয়েছে ভারতীয় চ্যানেলের চলমান নাটকের নামে। মেয়েদের যে পোশাকগুলো এবার ঈদ বাজারে নতুন এসেছে তা হলো কিরন মালা, বজ্রমালা, কটকটি, ইচ্ছেনদী রং ধনু, মুসকান, মননিয়ে পাশাপাশি, পারপাইস, ওয়েষ্টান, আওয়ারা, ঝং ফোরাক, সোনাকসি, কুরতি, ডোরেমন, মেয়েদের এসব ডিজাইনের পোশাকের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে ঈদ বাজারে। তবে বড়দের কিছু ডিজাইনের পোশাক ছোটদের পোশাক বাজারেও দেখা গেছে। এসব পোশাক ১০০০ টাকা থেকে শুরু করে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত রয়েছে। ছেলেদের পোশাক বাজারে রয়েছে পিকে, মোদি, পাগলু-২, হানি সিং, ডরিমন, বেনটেন, এংরিবার্ড, টম এন্ড জেরি, কিক, হিরোগিরি, বাচ্চান এসব ড্রেস পাওয়া যাচ্ছে বাজারে ১০০০ হাজা টাকা থেকে শুরু করে ১৬০০ টাকায়। তবে এখানেও মেয়েদের পোশাকের তুলনায় ছেলেদের পোশাকের দাম কম। এসব পোশাক ০ থেকে ৩৬ সাইজ পর্যন্ত পাওয়া যায় অর্থাৎ শূন্য থেকে বারো বছর মেয়েদের জন্য এসব তৈরী পোশাক পাওয়া যাচ্ছে এবং ০৬ থেকে ২৬ সাইজ পর্যন্ত ছেলেদের পাওয়া যাচ্ছে অর্থাৎ শূন্য থেকে আট-নয় বছরে ছেলেদের জন্য পোশাক বাজারে এসেছে। এসব তৈরী পোশাক বাজারে ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে। এবার মেয়েদের চলমান স্টাইল হচ্ছে লংড্রেস কিংবা ফ্রোক আর লেগইনছ। ছেলেদের চলমান স্টাইল হচ্ছে মোদি কোর্ট আর পাঞ্জাবী তার সাথে শার্ট আর জিনসের প্যান্ট। তবে মেয়েদের কিরন মালা ড্রেসটি ভাল চলছে আর ছেলেদের মোদী কোর্ট এর ভালো চাহিদা রয়েছে। চক ও গির্জামহল্লার ব্যবসায়ীরা জানান বেচাকেনা একটু কম যদি বৃষ্টি না থাকে তাহলে সামনের দিনগুলোতে বিক্রি বাড়বে বলে কি আশ্বাস ব্যক্ত করেন তারা জানান গতবারের তুলনায় এবার ছোটদের পোশাকের দাম একটু বেশি। খুচরা বাজারে শুধু নয় পাইকারি বাজারেও বেশি দাম চলছে। কেনাকাটা করতে আসা কয়েক জন অভিভাবক জানান, দাম একটু বেশি হলেও কিনতে হবে। কারন তারা কোন পোশাক না পরলেও ছোটদের খুশি করতে ঈদের জন্য পোশাক কিনে দিতেই হবে। আর ঈদে পোশাক নিয়ে আনন্দ তো শিশুরাই বেশি করে।

Leave a Reply