সর্বশেষ সংবাদ
দক্ষিণাঞ্চলেও পূর্ণাঙ্গ সেনানিবাস স্থাপন করা হবে- প্রধানমন্ত্রী

দক্ষিণাঞ্চলেও পূর্ণাঙ্গ সেনানিবাস স্থাপন করা হবে- প্রধানমন্ত্রী

দেশের দক্ষিণাঞ্চলে আরও একটি পূর্ণাঙ্গ সেনানিবাস স্থাপনের পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকা সেনানিবাসে রবিবার বিকালে স্বতন্ত্র পিজিআর সদর দফতরে ‘স্বতন্ত্র প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্ট’ (পিজিআর) এর ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রতিটা সেক্টরে বাংলাদেশকে আমরা কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্য এ উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় অংশীদার। আমার প্রত্যাশা, আপনারা সর্বোচ্চ দেশপ্রেম ও কর্তব্য পরায়ণতার মাধ্যমে বাংলাদেশকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নেবেন।’

তিনি বলেন, ‘সেনাবাহিনীর জন্য দেশের দক্ষিণাঞ্চলে আরও একটি পূর্ণাঙ্গ সেনানিবাস স্থাপন করার পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।’

তিনি জানান, আমরা ফোর্সেস গোল-২০১৩ প্রণয়ন করেছি। এর মাধ্যমে সেনাবাহিনীর উন্নয়ন করা হচ্ছে। সেনাবাহিনীতে নতুন নতুন ডিভিশন গঠন করেছি। জালালবাদ সেনানিবাসে ১৭ পদাতিক ডিভিশিন এবং পদ্মাসেতুর আনুষঙ্গিক অবকাঠামো নির্মাণ এবং নিরাপত্তার জন্য ৯৯ কম্পোজিট ব্রিগেড গঠন করা হয়েছে। রামুতে পদাতিক ডিভিশন এবং এর অধীনে ১টি আর্টিলারি ব্রিগেড, একটি পদাতিক ব্রিগেড, একটি আর্টিলারি ইউনিট ও ২টি পদাতিক ব্যাটালিয়ন প্রতিষ্ঠা করেছি।।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘১৯৯৮ সালে আওয়ামী লীগ সরকারই প্রথম গার্ডস সদস্যের ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে ভাতার প্রচলন করে। ২০১৩ সালে ঐতিহ্যবাহী পিজিআর’কে স্বতন্ত্র মর্যাদা প্রদান করা হয়।’তিনি বলেন, ‘জনবল বৃদ্ধির পাশাপাশি আমরা পিজিআর এর জন্য প্রয়োজনীয় যানবাহন, বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র, এপিসিসহ আধুনিক সরঞ্জামাদি সরবরা্হ বহুগুণে বৃদ্ধি করেছি। এর ফলে রেজিমেন্টের সামর্থ্য বৃদ্ধি পেয়েছে। কর্তব্যপালন সহজ হয়েছে। সদস্যদের মনোবল আরও দৃঢ় হয়েছে।’

তিনি জানান, গণবভনে ১৫০ জন গার্ডস সদস্যের জন্য বসবাসযোগ্য একটি ব্যারাক নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। এরফলে গণভবনে আপনাদের দীর্ঘদিনের আবাসিক সমস্যার অনেকটাই সমাধান হবে।প্রধানমন্ত্রী জানান, আমরা ৫টি সেনানিবাসে আর্মি মেডিক্যাল কলেজ, ৩টি সেনানিবাসে আর্মি ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় এবং ২টি সেনানিবাসে আর্মি ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এ্যাডমিনিস্ট্রেশন প্রতিষ্ঠা করেছি। আরও ৫টি ডেন্টাল কলেজ ও ৫টি নার্সিং ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে সকালে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ তার ভাষণে পিজিআর সদস্যদের একাগ্রতা, নিষ্ঠা, শৃঙ্খলাবোধ ও পেশাগত দক্ষতার প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাষ্ট্রীয় প্রয়োজনে নিজ উদ্যোগে ১৯৭৫ সালে ঢাকা সেনানিবাসে পিজিআর প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

Leave a Reply