সর্বশেষ সংবাদ
ডায়াবেটিস ও কোলেস্টেরল কমাতে দারুচিনি

ডায়াবেটিস ও কোলেস্টেরল কমাতে দারুচিনি

মাংস, পোলাও, কোরমা, মিষ্টি জাতীয় খাবারে (সেমাই বা পায়েস) ব্যবহার করা হয়ে থাকে দারুচিনি। খাবারে সুগন্ধের জন্যই এটি সাধারণত ব্যবহার করা হয়। সুগন্ধের জন্য দারুচিনি ব্যবহার করা হলেও এতে রয়েছে অনেক গুণ, যা কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে৷

বেশ কয়েকটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, যাদের রক্তে চিনির মাত্রা এবং চর্বি বেশি ছিল, নিয়মিত দারুচিনি যুক্ত খাবার খাওয়ার ফলে তা কমতে শুরু করেছে৷ আমেরিকার একটি মানবিক পুষ্টি গবেষণা কেন্দ্র জানায়, ডায়েবেটিস রোগীদের দারুচিনি মিশ্রিত আপেল কেক খাওয়ানো হয়েছিল। ধারণা করা হয়েছিল ফলাফল খারাপ আসবে। কিন্তু ফলাফল দেখা গেছে সম্পূর্ণ উল্টো। তাদের ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকতে দেখা গেছে।

এ ছাড়া দারুচিনিতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা শরীরের কোষগুলোকে বুড়িয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে৷ এখানেই শেষ নয়, দারুচিনি হৃদরোগ প্রতিরোধেও ভূমিকা রাখে৷

দারুচিনির উপকারিতা

প্রতিদিন আধা চা চামচ দারুচিনি গুঁড়ো রক্তে খারাপ কোলেস্টেরল এলডিএল এর মাত্রা কমায়। রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে এবং টাইপ-২ ডায়াবেটিসের রোগীদের জন্য খুবই উপকারী।

অনেকেই জয়েন্টের সমস্যায় ভুগছেন। এ ক্ষেত্রে দারুচিনিকে জয়েন্টের ব্যথা কমানোর ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। উষ্ণ গরম পানির মধ্যে এক চামচ মধু আর দারচিনি গুঁড়ো ভালভাবে মিশিয়ে নিন, এরপর শরীরের ব্যথা স্থানে আস্তে আস্তে মালিশ করুন।

দারচিনি পেটের জন্য ভীষণ উপকারী। এটি অ্যাসিডিটির সমস্যা দূর করে ও পেটের ব্যথা উপশম করে। পেট পরিষ্কার করতে, রাতে শোবার আগে দারুচিনির সঙ্গে হরিতকির গুঁড়া মিশিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়।

ঈস্ট ছত্রাক ঘটিত ইফেকশন প্রতিরোধ করতে দারুচিনি চমৎকার ভাবে কাজ করে। হৃদরোগীদের জন্যেও দারুচিনি খুব উপকারী। এটি রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখে।

দারুচিনি মরণব্যাধি লিম্ফোসাইটিক লিউকোমিয়ার বিস্তার রোধ করে। রক্ত জমাট না বাধার অসুখ হিমোফিলিয়া প্রতিরোধ করতে দারুচিনি বিশেষ ভূমিকা রাখে।

বাতের ব্যথা ও শরীরের হাড়ের ব্যথায় আধা চামচ দারুচিনির গুঁড়ো এক চামচ মধুর সাথে মিশিয়ে খেলে ব্যথা দূর হয়।

ঠাণ্ডায় গলা ব্যথা বা খুশখুশে কাশিতে মধু চায়ের সাথে দারুচিনি মিশালে আরাম পাওয়া যায়। নিয়মিত দারুচিনি খেলে স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি পায়।

ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বৃদ্ধিতে দারুচিনি, দূর্বাঘাস ও হলুদ সমপরিমাণে বেটে মিশিয়ে ত্বকে লাগালে ভালো ফল পাওয়া যায়। তৈলাক্ত ত্বকে ব্রণ রোধ করতে দারুচিনি উপকারী।

আর্থারাইটিসের সমস্যায় যারা ভুগছেন তারা এক কাপ গরম জলের মধ্যে দু চামচ মধু আর দারচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে সকাল সন্ধ্যা খেতে পারেন।

Leave a Reply