সর্বশেষ সংবাদ
ফেলনা নয় ফলের খোসা

ফেলনা নয় ফলের খোসা

যে কোনো ফলেই রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ, যা মানবদেহের জন্য খুব উপকারী। এ জন্য প্রতিনিয়তই আমরা কম-বেশি ফল খেয়ে থাকি। আর খোসাটা ফেলে দেই ময়লার ঝুড়িতে। কিন্তু ফলের খোসাও যে পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ তা আমরা অনেকেই জানি না, কিংবা জানলেও তা ব্যবহার করি না।

ফলে খোসা বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা যেতে পারে। বিশেষ করে খোসা ত্বকের যত্ন এবং রূপচর্চার কাজে বেশি ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ফলের খোসার ব্যবহার

লেবুর খোসা

যারা অনেক বেশি ঘামেন এবং যাদের শরীর থেকে ঘামের গন্ধ বের হয় তারা গোসলের ২০ মিনিট আগে পানিতে লেবুর খোসা ডুবিয়ে রাখুন। খোসা ডোবানো পানি দিয়ে গোসল করলে মাথার চুল থেকে সারা শরীর দিয়ে লেবুর গন্ধ বের হবে। আর নখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে নখে লেবুর খোসা ঘষতে পারেন।

কমলার খোসা

কমলালেবুর খোসা পানিতে ফুটিয়ে ছাকনি দিয়ে ছেকে একটি বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। এই পানি সুগন্ধির কাজ করবে। ঘরের বাইরে বেরোনোর আগে এটি শরীরে লাগিয়ে নিলে সারাদিন গায়ে কমলার ঘ্রাণ থাকবে। কমলার খোসা শুকিয়ে গুঁড়ো করে রেখে দিন। প্রতিদিন সামান্য গরম পানি মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করলে ত্বক উজ্জ্বল হবে।

পেঁপের খোসা

পেঁপের খোসা দিয়ে পায়ের পাতা ও গোড়ালি ঘষলে পা কোমল থাকে। এ ছাড়াও গোড়ালি ফাটার সমস্যা থেকেও রেহাই পাওয়া যায়।

কলার খোসা

দাঁতের হলদেভাবের জন্য অনেকেই প্রাণ খুলে হাসতে লজ্জা পান। এই সমস্যাও দূর করতে পারে ফেলে দেওয়া কলার খোসা। কলার খোসা দিয়ে রোজ দু’বেলা দাঁত মাজলে দাঁতের হলদে ভাব দূর হয়ে যায়।

আনারসের খোসা

পা পরিষ্কার করতে আনারসের খোসা কেটে ব্লেন্ডারে সামান্য পরিমাণে পানির সঙ্গে ব্লেন্ড করে নিতে পারেন। তারপর পায়ের উপর মাসাজ করে পনের মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

Leave a Reply