সর্বশেষ সংবাদ

হাজার হাজার মানুষের মানববন্ধন সমাবেশ

কলাপাড়ার ধানখালীতে ফের বিদ্যুতকেন্দ্রের জন্য জমি অধিগ্রহন প্রক্রিয়া বন্ধের দাবি
কলাপাড়া প্রতিনিধি কলাপাড়ার ধানখালীতে ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মাণ কাজ চলছে। দ্বিতীয়বার আর কোন বিদ্যুতকেন্দ্র করতে জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধের দাবিতে ধানখালীর হাজার হাজার নারী-পুরুষ বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিগ্রি কলেজহাট বাজারে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে। এসময় সমাবেশে ঘোষণা দেয়া হয় জীবন থাকতে আর কোন জমি অধিগ্রহন করতে দেয়া হবে না। বক্তারা বলেন, তারা শতকরা ৯৫ ভাগ মানুষ আওয়ামী লীগে ভোট দেন। তিন ফসলী জমি বাদ দিয়ে যেখানে এক ফসলী কিংবা জনবসতিহীন এলাকা রয়েছে ওই জমিতে বিদ্যুত কেন্দ্র করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। ধানখালীর পাঁচজুনিয়াসহ তিনটি ওয়ার্ডের হাজারো মানুষ এসময় বিভিন্ন ধরনের ¯েøাগান দেন। তাদের দাবি ১২ মাস এজমিতে ধান ছাড়াও রবিশস্য ফলানো হয়। কোটি কোটি টাকার তরমুজ ফলানো হয়। এজমি আবাদ ছাড়া তাদের বেঁচে থাকার কোন উপায় নেই। বক্তারা এ এলাকাকে মুজিবনগর দাবি করে তার একাংশ একটি তাপ বিদ্যুত কেন্দ্রর জন্য চলে গেছে বলেন। প্রায় ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে বক্তব্য রাখেন ধানখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম শহিদুল আলম, জলিল মৃধা, অধ্যাপক জিসান হায়দার আলমগীর, অধ্যাপক জাকির হোসেন, রিয়াজ তালুকদার, ইউপি সদস্য বজলুর রহমান, রাজিব গাজী, কামাল হোসেন তালুকদার, জুয়েল মিয়া জুলহাস প্রমুখ। মানববন্ধনে আসা ৭০ বছর বয়সী ডুলি বেগম বলেন,‘ আমাগো বাড়িঘর বোলে নেতে চায় বিদ্যুতের লাইগ্যা, এইয়া হুইন্যা আইছি। মোগো বাড়িঘর, জমি নেলে মোরা যামু কই।’ একই কথা বিলকিছ বেগম, কোহিনুরসহ সকলের। এরা ক্ষুব্ধ কন্ঠে জানান, জান দেতে রাজি আছি। আর জমি নেতে দিমুনা। দ্বিতীয়বার জমি অধিগ্রহণ থেকে মুক্তি চাই ¯েøাগান নিয়ে হাজার হাজার মানুষ এ সমাবেশে অংশ নেয়। বক্তারা দাবি করেন ফের জমি অধিগ্রহন করলে দুইটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, পাঁচটি প্রাইমারি স্কুল, একটি ডিগ্রি কলেজ, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ভূমি অফিস, ইউপি কমপ্লেক্স, তিনটি বাজার, একটি কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন, ১৫টি মসজিদ, দুইটি নুরানি মাদ্রাসা, একটি মন্দির, একটি দরবার শরীফ, একটি গুচ্ছগ্রাম, কমিউনিটি ক্লিনিক, কৃষি গুদামঘর, আটটি এনজিও অফিস নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। বক্তারা বিষয়টি নিরসনে কিংবা নতুন করে ধানখালী আর বিদ্যুত কেন্দ্র না করে অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
কলাপাড়ার ধানখালীতে ফের বিদ্যুতকেন্দ্রের

Leave a Reply