সর্বশেষ সংবাদ
পটুয়াখালীতে শিক্ষার্থীর গলা কেটে হত্যা

পটুয়াখালীতে শিক্ষার্থীর গলা কেটে হত্যা

পটুয়াখালী প্রতিনিধি॥
পটুয়াখালীতে তুচ্ছ ঘটনায় মোঃ মাহাবুব প্যাদা (২০) নামে এক কলেজ শিক্ষার্থীকে গলা কেটে হত্যা করেছেন কথিত ছাত্রলীগ কর্মীরা। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে পৌর শহরের নিউমার্কেট চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মাহাবুব পটুয়াখালী ভোকেশনাল এর দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি সবুজবাগ ৯ নম্বর লেনের বাসিন্দা ইউছুফ প্যাদার ছেলে।

নিহত পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, মাহাবুব বৃহস্পতিবার রাতে তার স্ত্রীকে নিয়া বিজয় মেলা ঘুড়তে আসেন। সেখানে মাহাবুবের সাথে তুচ্ছ ঘটনায় কথিত ছাত্রলীগ কর্মীদের সাথে বাকবিতন্ডা হয়। এর পরে মাহাবুব মেলা থেকে বেড় হয়ে নিউমার্কেট চত্বরে আসেন।

এসময় একতা সড়কের ভাড়াটে বাসিন্দা মশিউরের ছেলে শহর ছাত্রলীগ কর্মী সাইমুন ইসলাম বাপ্পী, একই এলাকার ভাড়াটে বাসিন্দা পুলিশ সদস্য মোস্তফার ছেলে মিজানুর রহমান এবং গোরাস্থান রোড় এলাকার ভাড়াটে বাসিন্দা কথিত শহর ছাত্রলীগ জিএম জহির রায়হান এবং দুই নং বাধঘাট এলাকার মাংস ব্যাবসায়ীর জুলফিকারের ছেলে আল আমীন ওরফে কষাই আল আমীনসহ তাদের সাঙ্গপাঙ্গরা মাহাবুবকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলায় আঘাত করে। এসময় গলার তিনের দুই অংশ শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। অভিযুক্ত বাপ্পীর বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার অভিযোগ এবং কলাপাড়া থানায় মাদক মামলা রয়েছে এবং জহিরের নামে মাদক ব্যবসার অভিযোগ রয়েছে।

এসময় মাহাবুবের সাথে থাকা বন্ধু কাওছার নামে এক যুবক তাকে পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এসময় তার অবস্থা আশংকা জনক বলে জানালে তাৎক্ষনিক ভাবে বরিশাল নিয়ে যায়। বরিশাল নেয়া পথে বাখেরগঞ্জ অতিক্রম কালে মাহাবুব মৃত্যুর কোলে ঢলে পরেন। মাহাবুবের প্রতিবেশি বন্ধু রুবেল রাত সাড়ে ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়েছে বলে মোবাইল ফোনে জানান।

ঘটনার পর পরই সদর থানা অফিসার ইনর্চাজ এসএম তারিকুল ইসলাম ও এসআই মোমীন হাসপাতালে যান এবং মাহাবুবের সাথে থাকা বন্ধু কাওছারের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলে হামলাকারীদের বিষয়টি নিশ্চিত হয়। সদর থানা অফিসার ইনর্চাজ এসএম তারিকুল ইসলাম জানান, আমরা আসামীদের ধরতে অভিযানে নেমেছি।

Leave a Reply