সর্বশেষ সংবাদ
বাউফলে ভর্তি ফি’র নামে বাণিজ্য

বাউফলে ভর্তি ফি’র নামে বাণিজ্য

বাউফলে হাইস্কুল ও মাদ্রাসাগুলোয় শ্রেণী উন্নয়ন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ভর্তি ফি’র নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ করেছেন অভিভাবকরা।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার অধিকাংশ স্কুল ও মাদ্রাসাগুলোয় শ্রেণী উন্নয়ন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ভর্তি ফি’র নামে আদায় করা হচ্ছে ৮০০ থেকে ১ হাজার টাকা। টাকা না দিলে ওপরের ক্লাসে হাজিরা খাতায় নাম তোলা হবে না- এমন হুমকি দিয়ে ক্লাস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা আদায় করছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।
বাউফল পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মাহমুদ অপু বলেন, শিক্ষকরা যদি এভাবে শিক্ষার নামে বাণিজ্যে নামেন, শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জোর করে টাকা আদায় করেন, তাহলে সাধারণ মানুষ কোথায় যাবে।
কয়েকজন অভিভাবক অভিযোগ করেন, এক বা একাধিক বিষয়ে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ক্লাস প্রমোশন ফি’র বাইরেও অতিরিক্ত আরও ৫০০ টাকা আদায় করছে স্কুলগুলো। বাউফল আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়ের অপর এক অভিভাবক অভিযোগ করেন, তার মেয়ে ষষ্ঠ শ্রেণীর বার্ষিক পরীক্ষায় প্রত্যেকটি বিষয়ে পাস করলেও তাকে সপ্তম শ্রেণীতে নতুন করে ভর্তি করতে হয়েছে। আর এজন্য তার কাছ থেকে ৮১০ টাকা নেয়া হয়েছে। পূর্ব কালাইয়া হাসান সিদ্দিকী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক বা একাধিক বিষয়ে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত আরও ৫০০ টাকা হারে নিয়ে ক্লাস প্রমোশন দেয়ার অভিযোগ রয়েছে। উপজেলার সর্বত্রই নতুন শিক্ষাবর্ষে ভর্তি ও ক্লাস প্রোমশনের নামে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর এমন বাণিজ্যে দিশেহারা অভিভাকদের মধ্যে মারাত্মক অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান বলেন, সরকারি বিধির বাইরে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply