সর্বশেষ সংবাদ
বিসিসি নির্বাচনে সাদিক আবদুল্লাহকে মেয়র প্রার্থী চায় নগর আ’লীগ

বিসিসি নির্বাচনে সাদিক আবদুল্লাহকে মেয়র প্রার্থী চায় নগর আ’লীগ

পুলক চ্যাটার্জি,অতিথি প্রতিবেদকঃ বরিশালের সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) আগামী নির্বাচনে নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে দেখতে চান নেতাকর্মীরা। গত ৯ এপ্রিল বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের জরুরি কার্যকরী সভায় শীর্ষ নেতারা নিজেদের এমন মনোভাব তুলে ধরেন। এরপর সর্বসম্মতিক্রমে নিজেদের এ সিদ্ধান্ত সুপারিশ হিসেবে কেন্দ্রে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন তারা।

মেয়র পদে নিজেদের প্রার্থীর জয় সুনিশ্চিত করতে এখন থেকেই নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে সাংগঠনিক কার্যক্রম বৃদ্ধির মাধ্যমে নেতাকর্মীদের নির্বাচনমুখী করে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়ার ব্যাপারেও তারা একমত হন। নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল সমকালকে জানান, নগর কমিটির সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ এমপির তোলা প্রস্তাবে সর্বসম্মতির পর সাদিক আবদুল্লাহকে মেয়র পদে মনোনয়ন দেওয়ার সুপারিশ রেজুলেশন করে কেন্দ্রে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

 নগর কমিটির সভাপতির গোলাম আব্বাসের সভাপতিত্বে ওই সভায় অতিথি ছিলেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুস এমপি।

সভায় অংশ নেওয়া নেতারা জানান, সিটি করপোরেশন নির্বাচন সামনে রেখে নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে সাংগঠনিক দুর্বলতা দূর করার জন্য নগর কমিটির শীর্ষ তিন নেতাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। গত ৯ বছরে বরিশালে আওয়ামী লীগ সরকারের বাস্তবায়নকৃত উন্নয়ন সম্পর্কে জনগণকে

অবহিত করতে এক লাখ প্রচারপত্র ছেপে তা বিলি করার সিদ্ধান্ত হয়। এ ছাড়া সিটি নির্বাচনে নগরীর ১০৪টি ভোটকেন্দ্রের জন্য আওয়ামী লীগের ইউনিট কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সভায় জেবুন্নেছা আফরোজ এমপি নগরীর বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরে বর্তমান মেয়র বিএনপি সমর্থিত আহসান হাবীব কামালের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরণের মৃত্যুর পর নগর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বহীন পরিস্থিতি সামাল দিয়েছেন সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ। এ কাজে তিনি সাফল্যের পরিচয় দিয়েছেন। আগামী সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে তিনিই হবেন যোগ্য প্রার্থী।

জেবুন্নেছা আফরোজের এমন বক্তব্যে সভায় অংশ নেওয়া নেতাকর্মীরা করতালি দিয়ে সমর্থন জানান। নগর আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক নিরব হোসেন টুটুল বলেন, প্রায় তিন বছর নগর আওয়ামী লীগ ছিল অভিভাবকহীন। গত বছর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার অনেক আগে থেকেই সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ নগর আওয়ামী লীগের হাল ধরেন। তার নেতৃত্বে নগর আওয়ামী লীগে বিরাজমান বন্ধত্ব্যের অবসান হয়েছে। দল নিরপেক্ষ ভোটাররাও সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহকে আগামী নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী চান।

Leave a Reply