» ভোলায় ইলিশ শিকারের দায়ে ১১ জেলেকে কারাদণ্ড

Published: ১০. অক্টো. ২০১৮ | বুধবার

অনলাইন ডেস্ক : সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকারের দায়ে ভোলার মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদী থেকে ১৫ জেলেকে আটক করেছে উপজেলা প্রশাসনের যৌথটিম। আটকদের মধ্যে ১১ জনকে কারাদণ্ড, চারজনকে জরিমানা করা হয়েছে।

বুধবার (১০ অক্টোবর) বিকেলে তাদের আটক করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. কামলা হোসেন এ রায় দেন।

সূত্র জানায়, ইউএনও কামাল হোসেনের নেতৃত্বে মৎস্য বিভাগ, কোস্টগার্ড ও নৌ-পুলিশের একটি টিম মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযান চালায়। অভিযানে দুই নদীর ইলিশা ও তুলাতলী এলাকায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার অপরাধে ১৫ জনকে আটক করা হয়। এছাড়াও একটি ট্রলার, ১৫ কেজি ইলিশ ও সাত হাজার ২শ’ মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। আটকদের মধ্যে ভ্রাম্যমান আদালতে মাধ্যমে ১১ জনকে এক বছর করে কারাদণ্ড ও চারজনকে পাঁচ হাজার টাকা করে ২০ হাজার টাকা জেল-জরিমানা করা হয়। জব্দ মাছ এতিমখানায় বিতরণ করা হয় এবং জালগুলো আগুনে পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়।

কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের অপারেশন কর্মকর্তা লে. নুরুজ্জামান শেখ ও সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমের রোববার (৭ অক্টোবর) থেকে রোববার (২৮ অক্টোবর) পর্যন্ত ইলিশ ধরা, জাল ফেলা, বিক্রি ও পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার।