সর্বশেষ সংবাদ

» বরিশালবাসীর স্বপ্নের পদ্মা সেতু: প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৬০ শতাংশ

Published: ০২. নভে. ২০১৮ | শুক্রবার

অনলাইন ডেস্ক// বরিশালবাসীর স্বপ্নের পদ্মা সেতুর ভিজিটরস সেন্টারের উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পদ্মা সেতুর সার্ভিস এরিয়া ১ এ ভিজিটরস সেন্টারের উদ্বোধন করেন। এ সময় সেতুমন্ত্রী জানান, ‘পদ্মা সেতুর মূল অংশের ৭১ শতাংশ কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে।’
৯৩০০ বর্গফুটের ভিজিটরস সেন্টারের মাল্টিপারপাস হলের ক্যাপাসিটি ১২০ জন। ইনডোর ও আউটডোর ক্যাফের ক্যাপাসিটি ১০০ জন। এছাড়াও একটি ভিআইপি কক্ষ ও একটি সভাকক্ষ রয়েছে।

সেতু বিভাগের সিনিয়র সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানান- ‘প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৬০ ভাগ। সেতুর পিলারের নকশা নিয়ে যে সমস্যা ছিল গতকাল তা দূর হয়ে গেছে।’

ভিজিটরস সেন্টার সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর সব বড় বড় প্রকল্পে একটি ভিজিটরস সেন্টার থাকে। কারণ, বড় প্রকল্পে অনেক ভিজিটর আসেন। এখান থেকে ভিজিটররা অনেক কিছু জানতে পারবেন ও নিজেদের সমৃদ্ধ করতে পারবেন।’

সেতু প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে- মূল সেতুর ২৬২টি পাইলের মধ্যে ১৮২টি পাইল ড্রাইভিংয়ের কাজ শেষ হয়েছে। মূল সেতুর দুই প্রান্তের ২টি ট্রানজিশন পিয়ারের ৩২ টি পিয়ারের সবগুলো পাইল শেষ হয়েছে। মূল সেতুর ৪২টি পিয়ারের মধ্যে ১২টি পিয়ারের কাজ শেষ হয়েছে এবং ২১টি পিয়ারের কাজ চলমান আছে। মাওয়া সাইটে মোট ১৭টি ট্রাস এসেছে যার মধ্যে ৫ টি স্থায়ীভাবে ও ১টি অস্থায়ীভাবে স্থাপন করা হয়েছে। মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তের ৩৫৬ টি ভায়াডাক্টের সবগুলো পাইল বসানো হয়েছে। জাজিরা প্রান্তের ভায়াডাক্টের ৪৭ টি পিয়ারের ১৮ টি শেষ হয়েছে এবং ২৯ টি চলমান আছে। মাওয়া প্রান্তে ভায়াডাক্টের ৪১ টি পিয়ারের মধ্যে ৬ টি শেষ হয়েছে এবং ৩৫ টি চলমান আছে।

নদী শাসনের মোট ৪৬ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। মোট ১৩ কিলোমিটারের মধ্যে তিন কিলোমিটারের কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে এবং বাকি আছে ১০ কিলোমিটার। অন্যদিকে সংযোগ সড়কের কাজ সব শেষ হয়েছে।’’