সর্বশেষ সংবাদ

» আরামবাগের কর্মকর্তা-বলবয়রা পুলিশের সামনেই রেফারিকে পেটালেন!

Published: ০৮. নভে. ২০১৮ | বৃহস্পতিবার

অনলাইন ডেস্ক// ফেডারেশন কাপ ফুটবলের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনাল শেষে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের কর্মকর্তা এবং বলবয়দের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন ম্যাচের রেফারি ও সহকারী রেফারিরা। বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ম্যাচের শেষ মুহূর্তে হাইতির ফরোয়ার্ড বেলফোর্ট কারভেন্সের গোলে নাটকীয় জয় পায় আবাহনী। ৩-২ গোলে আরামবাগকে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে মৌসুমসূচক টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে ওঠে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা।

আবাহনীর জয়সূচক গোলদাতা অফসাইডে ছিলেন- এমন অভিযোগ ছিল আরামবাগের। গোলের পর আরামবাগের খেলোয়াড়রা অভিযোগ করলেও তা জোরালো ছিল না। তবে ম্যাচ শেষ হওয়ার পর দলের কয়েকজন খেলোয়াড় ঘিরে ধরেন রেফারি ও সহকারী রেফারিদের। এ সময় ডাগআউট থেকে আরামবাগের কর্মকর্তা এবং বলবয়রা দৌড়ে গিয়ে রেফারি ও তার সহকারীদের উপর চড়াও হন।

আরামবাগের বেশি ক্ষোভ ছিল সহকারী রেফারি হারুনুর রশিদের উপর। তিনিই ছিলেন ওই প্রান্তের সহকারী। পানির বালতি, আইসবক্স দিয়ে পুলিশের সামনেই সহকারী রেফারিকে পিটিয়েছেন আরামবাগের লোকজন।

এ সময় আরামবাগের সুজন, প্রিতমসহ বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ও ছিলেন। রেফারি ও সহকারি রেফারিদের উপর মাঠের মাঝখানে কয়েক দফা আক্রমণ হয়েছে পুলিশ সদস্যদের সামনেই। পুলিশ সময়মতো আক্রমণকারীদের প্রতিহত করলে এ অনাকাংখিত ঘটনা নাও ঘটতে পারতো।

যারা মাঠের মাঝে গিয়ে রেফারি ও তার সহকারীদের লাঞ্ছিত করেছেন তারা সবাই আরামবাগের টিমের অংশ। ডাগআউট থেকেই দৌড়ে গিয়ে তারা এ ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে। পুলিশের বিলম্বিত হস্তক্ষেপ হলেও, তাতে আরো বড় অঘটন থেকে বেঁচে গেছেন রেফারি ও সহকারী রেফারিরা।