সর্বশেষ সংবাদ

» বরিশালে ডিবির মাদক মামলায় অভিযুক্ত ভিপি মঈন তুষার!

Published: ০৮. নভে. ২০১৮ | বৃহস্পতিবার

অনলাইন ডেস্ক// বরিশালের বহুল আলোচিত সমালোচিত ছাত্রলীগ নেতা মঈন তুষারের বিরুদ্ধে মাদক সম্পৃক্ততার অভিযোগ পেয়েছে পুলিশ। ফেন্সিডিলসহ গ্রেপ্তার ২ মাদক বিক্রেতা গোয়েন্দা পুলিশকে এমন তথ্য উপাত্ত দিয়েছে।
এই ঘটনায় বরিশাল বিএম কলেজের ভিপি মঈন তুষারসহ ৭ জনকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে।

যদিও মঈন তুষার বলছেন স্ব-দলীয় বিরোধী ঘরনার রাজনীতিবিদ কোন এক প্রভাবশালী নেতার ইন্ধনে পুলিশ তাকে মামলায় জড়িয়েছে।

তবে বরিশাল মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ বলছে- বুধবার নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ২২২ বোতল ফেন্সিডিলসহ মুশফিকুল হাসান মাসুম (৩৮) এবং সবুজ ইসলাম শাহিন (৪০) নামে দুই মাদক বিক্রেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তাদের জিজ্ঞাসাবাদে মাদক ব্যবসায় জড়িত ভিপি মঈন তুষারসহ আরও ৫ মাদক ব্যবসায়ির পরিচয় পাওয়া গেছে।

বাকি চারজন হলেন- শহরের গোরস্থান রোডের বাসিন্দা শাহরিয়ার সাচিপ রাজিব, জিয়া সড়ক এলাকার আদনান আলম বাবু, বিএন খান কলেজের শিক্ষক মো. হারুন খান এবং রাজশাহীর আছমত খান।

আলোচিত এই মামলার বাদী গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আশিষ পাল বলছেন- মুশফিকুল হাসান মাসুম এবং সবুজ ইসলাম শাহিনকে জিজ্ঞাসাবাদে ভিপি তুষারসহ আরও ৫ জনের নাম প্রকাশ করেছে। যে কারণে তাদেরসহ মোট সাতজনকে অভিযুক্ত করে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়েছে।

সেই মামলায় গ্রেপ্তার দুইজনকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে পলাতক ভিপি মঈন তুষারসহ বাকি ৫জনকে গ্রেপ্তারে পুলিশ কাজ করছে।

এক সময়ের প্রভাবশালী ছাত্রলীগ নেতা মঈন তুষার সাবেক সিটি মেয়র আওয়ামী লীগ নেতা শওকত হোসেন হিরনের অনুসারী। কিন্তু হিরনের মৃত্যুর পরে বিরোধীদের চাপের মুখে তিনি কোনঠাসা হয়ে পড়েন। ফলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে ব্যবসা নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন।

মঈন তুষার অভিযোগ করেছেন- রাজনৈতিক ভাবে হয়রানিতে ব্যর্থ হয়ে প্রতিপক্ষ এখন পুলিশকে ব্যবহার করে ফায়দা লুটতে চাইছে। যার অংশ হিসেবে মাদক সম্পৃক্ততার অভিযোগ তুলে তাকে মামলায় জড়ানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।’’